1. faysalislam405@gmail.com : ফয়সাল ইসলাম : ফয়সাল ইসলাম
  2. tajul.islam.jalaly@gmail.com : তাজুল ইসলাম জালালি : তাজুল ইসলাম জালালি
  3. marufshakhawat549@gmail.com : মারুফ হোসেন : মারুফ হোসেন
  4. sheikhmustakikmustak@gmail.com : Sheikh Mustakim Mustak : Sheikh Mustakim Mustak
  5. najmulnayeem5@gmail.com : নাজমুল নাঈম : নাজমুল নাঈম
  6. rj.black.privateboy@gmail.com : rjblack :
  7. saddam.samad.24@gmail.com : সাদ্দাম হোসাইন : সাদ্দাম হোসাইন
  8. samirahmehd1997@gmail.com : Samir Ahmed : Samir Ahmed
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

ঢাকার প্রথম মুসলিম স্থাপত্য বিনত বিবির মসজিদ

সাদ্দাম হোসাইন
  • প্রকাশিতঃ সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১
  • ৬২ বার পড়া হয়েছে
বিনত বিবির মসজিদ
বিনত বিবির মসজিদ

বলা হয় মসজিদের শহর ঢাকা। এই ঢাকার ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায় সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে এখানে তৈরি হয়েছে নানান স্থাপত্যরীতির মসজিদ। একুশ শতকের এই সময়ে এসে ঢাকার মসজিদগুলোর স্থাপত্যরীতিতে এসেছে আধুনিকতার ছোঁয়া। মসজিদের শহর ঢাকায় এতো এতো মসজিদ ছাপিয়ে আমরা খোঁজ করব এই শহরের প্রথম মসজিদের কথা যেটি কিনা এখানকার প্রথম মুসলিম স্থাপত্য এবং ঢাকার সবচেয়ে পুরনো স্থাপত্য বলেও স্বীকৃত। পুরান ঢাকার ৬ নং নারিন্দা রোডে অবস্থিত বিনত বিবির মসজিদ ঢাকার প্রথম মসজিদ তথা এই অঞ্চলের প্রথম মুসলিম স্থাপত্য। একইসাথে ঢাকায় কোন নারীর নামে প্রতিষ্ঠিত একমাত্র মসজিদও এটি।

প্রতিষ্ঠাঃ ইতিহাস সুলতানি আমলে প্রতিষ্ঠা পাওয়া এই মসজিদের ইতিহাস নিয়ে দুইটি গল্পের উল্লেখ পাওয়া যায়। ইতিহাসবিদ আহমদ হাসান দানী বলেছেন, নাসিরউদ্দিন মাহমুদ শাহের আমলে (১৪৩৫-১৪৫৯) মার মারহামাতের মেয়ে মুসাম্মদ বখত বিনত ১৪৫৭ সালে এই মসজিদ নির্মাণ করেন। কিন্তু মসজিদের প্রধান ফটকের কালো পাথরের শিলালিপি এই মসজিদের প্রতিষ্ঠার পেছনে অন্য ইতিহাসের জানান দেয়। এই শিলালিপির তথ্যানুসারে, তখনকার সময়ে পারস্য উপসাগরের তীরবর্তী অঞ্চল থেকে বাংলাদেশে বণিকরা ব্যবসা করতে আসত৷ সেই অঞ্চল থেকে আসা এক বণিকের নাম ছিল আরাকান আলী। তিনি পুরান ঢাকার নারিন্দা অঞ্চলে এসে ব্যবসা শুরু করেন এবং নামাজ পড়ার সুবিধার জন্য এখানে একটি মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন। এই মসজিদ তার আদরের কন্যা বিনত বিবির নামে নামকরণ করেন।

বিনত বিবির মসজিদ

বিনত বিবি মারা গেলে মসজিদের প্রাঙ্গনেই তাকে সমাধিস্থ করা হয়৷ আরাকান আলীর শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাকেও তার মেয়ের পাশে সমাধিত করা হয়। মসজিদের দুটি গম্বুজের একটিতে প্রথম প্রতিষ্ঠার সাল প্রোথিত করা আছে। আরেকটি গম্বুজে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী বিনত বিবির এই মসজিদে প্রথমবারের মত সংস্কারকাজে হাত দেয়া হয় ১৯৩০ সালে৷ মসজিদে যে শিলালিপিটি পাওয়া গিয়েছিল ধারণা করা হয় ঢাকায় এটিই সর্বপ্রথম কোন মুসলিম শিলালিপি। শেষ বেলায় এটা একটা প্রশ্ন রয়ে যায় যে, বিনত বিবির মসজিদের আগে কি এখানে কোন মসজিদ তৈরি হয়নি? একথা সর্বোতভাবে বলা যায় না যে ঢাকার প্রথম মসজিদ এটাই কিন্তু এর আগের কোন মসজিদেরও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। হয়তো সেসব মসজিদের ধ্বংসস্তুপের কিছুই ইতিহাস অবশিষ্ট দেখতে পারেনি বলে বিনত বিবির মসজিদকেই বলা হচ্ছে ঢাকার প্রথম মুসলিম স্থাপত্য বা মসজিদ।

সংস্করণঃ ঢাকার প্রথম মুসলিম ঐতিহাসিক স্থাপত্য এ মসজিদে সংস্কার করে দেয়া হয়েছে আধুনিকের ছোঁয়া। এতে করে স্থাপত্যটি তার অস্তিত্ব ধরে রাখতে পেরেছে ঠিক কিন্তু বিলীন করে দেয়া হয়েছে শত বছরের ঐতিহ্য। ঢাকার প্রথম মসজিদ বলে খ্যাত এই স্থাপত্যে নতুন করে দুতলা সংযোজন করা হয়েছে। উত্তর পাশ ছাড়া বাকি অংশগুলো সংস্কার করে নতুনত্ব নিয়ে আসা হয়েছে। খুব কম অংশকেই এখন সেই বিনত বিবির মসজিদের অঙ্গ বলে ধরে নেয়া যায়। এতো প্রাচীন মসজিদকে বেশ অবহেলার সাথেই মূল্যায়ন করেছে দেশের প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তর। নেয়নি কোন সংরক্ষণের উদ্যোগ, নেই কোন দেখভালের বালাই। তাই যথাতথ ভাবে এলাকাবাসী এর স্বাতন্ত্র্য ধ্বংস করেছে বারবার।

বিনত বিবির মসজিদ

শুধু এই মসজিদই নয় ঢাকার শত বছরের পুরনো অনেক স্থাপনাই অবহেলা আর বাণিজ্যিকীকরণ এর ফাঁদে পড়ে হারিয়ে গেছে, কর্তৃপক্ষ ফিরেও তাঁকায় নি। তবু এখনো বিনত বিবির মসজিদ ঐতিহ্য নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে তবে সেই ঐতিহ্য শুধু নামেই। ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব প্রেমী যে কেউ চাইলে ঘুরে আসতে পারেন ঢাকার এই প্রাচীন মসজিদ। এজন্য আপনাকে গুলিস্তান থেকে রিকশা যোগে পুরান ঢাকার নারিন্দা রোডে আসতে হবে। ৬ নং নারিন্দা রোডে বেশ নীরবেই কালের সাক্ষী হয়ে আছে সুলতানি যুগের এই প্রাচীন মসজিদ।

বিজ্ঞাপন





শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও
© ২০২১ - সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । হক কথা ২৪.নেট
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )