● মঙ্গলবার, এপ্রিল 23, 2024 | 07:00 পূর্বাহ্ন

পবিত্র কুরআন নাজিল হওয়ার রাত

পবিত্র কুরআন নাজিল হওয়ার রাত

কুরআন আর রমজানের সম্পর্ক গভীর। কুরআন নাজিল হয়েছে মর্যাদাপূর্ণ রাত শবে কদরে। এরপর নবুওয়াতের ২৩ বছর ধরে তা নবী করিম (সা.)-এর ওপর নাজিল হতে থাকে। শবে কদর পড়েছে রমজান মাসে।

আল্লাহ বলেন, ‘রমজান মাস, এতে মানুষের পথ প্রদর্শক ও সৎ পথের স্পষ্ট নিদর্শন এবং ন্যায় ও অন্যায়ের মীমাংসা রূপে কুরআন অবতীর্ণ হয়েছিল। তোমাদের মধ্যে যে কেউ এ মাস পাবে, সে যেন এ মাসে অবশ্যই রোজা রাখে। আর যে রোগী বা মুসাফির, তাকে অন্য দিনে এ সংখ্যা পূরণ করতে হবে। আল্লাহ তোমাদের জন্য সহজ করতে চান, তোমাদেরকে কষ্ট দিতে চান না, যাতে তোমরা নির্ধারিত দিন পূর্ণ করতে পার ও তোমাদেরকে সৎ পথে পরিচালিত করার জন্য আল্লাহর মহিমা ঘোষণা করতে পার, আর তোমরা কৃতজ্ঞ হলেও হতে পার।’ (সুরা বাকারা, আয়াত: ১৮৫)

আল্লাহ পবিত্র রমজানের একটি বিশেষ রাত সম্পর্কে বলেছেন, ‘আমি তো এ কুরআন অবতীর্ণ করেছি এক লাইলাতুল মুবারকে (সৌভাগ্যের রাত্রিতে) আমি তো সতর্ককারী।’ (সুরা দুখান, আয়াত: ৩) আল্লাহ আরও বলেন, ‘আমি এ কুরআন অবতীর্ণ করেছি লাইলাতুল কদরে (মহিমান্বিত রাত্রিতে)।’ (সুরা কদর, আয়াত: ১, কোরান শরিফ: সরল বঙ্গানুবাদ, মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, প্রকাশক প্রথমা প্রকাশন)

নবী করিম (সা:) প্রতিদিন জিবরাইল (আ.)-কে কুরআন পড়ে শোনাতেন। কারও কারও মতে, এ রকম সময়েই জিবরাইল (আ.) তাঁকে জানিয়েছেন কুরআনের কোন আয়াতগুলো কার্যকর থাকবে আর কোনগুলো রহিত হয়ে গেছে।

এই সম্পর্কিত আরও

আবুল কালাম
বিস্তারিত...
 আরবে ঈদের তারিখ ঘোষণা
বিস্তারিত...
813788_175
বিস্তারিত...
রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান
বিস্তারিত...
জান্নাতের ফুল
বিস্তারিত...
কাজী নজরুল ইসলাম
বিস্তারিত...