1. yenboravisluettah@gmail.com : bimak73555 :
  2. faysalislam405@gmail.com : ফয়সাল ইসলাম : ফয়সাল ইসলাম
  3. tajul.islam.jalaly@gmail.com : তাজুল ইসলাম জালালি : তাজুল ইসলাম জালালি
  4. marufshakhawat549@gmail.com : মারুফ হোসেন : মারুফ হোসেন
  5. saddam.samad.24@gmail.com : সাদ্দাম হোসাইন : সাদ্দাম হোসাইন
  6. : :
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

পৃথিবীর পাশ দিয়ে যাবে স্ট্যাচু অব লিবার্টির চেয়ে বড় গ্রহাণু!

সাদ্দাম হোসাইন
  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩১২ বার পড়া হয়েছে
স্ট্যাচু অব লিবার্টির চেয়ে বড় গ্রহাণু!
স্ট্যাচু অব লিবার্টির চেয়ে বড় গ্রহাণু!

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা পৃথিবীর আশপাশে ঘুরতে থাকা গ্রহাণুগুলো প্রতিনিয়ত পর্যবেক্ষণ করতে থাকে। এই মহাকাশের পাথরটি স্ট্যাচু অব লিবার্টির আকারের তিনগুণ বড়। এই গ্রহাণুর নামকরণ হয়েছে ‘২০২১ এনওয়াইওয়ান’।

নাসার বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই গ্রহাণু পৃথিবীকে কোনো আঘাত করবে না। কিন্তু এটিকে এখনো পৃথিবীর নিকটবর্তী একটি গ্রহাণু বিবেচনা করা হচ্ছে। এই গ্রহাণু সূর্য থেকে ১৯ কোটি কিলোমিটার দূরে পৃথিবীকে অতিক্রম করবে। পৃথিবী থেকে ১৫ লাখ কিলোমিটার দূরে থেকেই পৃথিবী অতিক্রম করার কথা রয়েছে। পৃথিবী আর চাঁদের দূরত্বের চারগুণ দূরে থেকে এই গ্রহাণু পৃথিবীকে অতিক্রম করবে।

তবে নাসার বিজ্ঞানীরা এই গ্রহাণুকে পৃথিবী বা পৃথিবীর প্রাণীদের জন্য কোনো হুমকি হিসেবে দেখছেন না। নাসার একটি প্রতিনিধিদল প্রতিনিয়ত এই গ্রহাণু পর্যবেক্ষণ করছেন, ভবিষ্যতে এই গ্রহাণু গতিপথ বা কক্ষপথ পরিবর্তন করে কিনা, সে বিষয়ে সতর্ক থাকছেন।

পৃথিবীর পাশ দিয়ে যাবে কিনা বা পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষ হবে কি না, সে বিষয়টি তদরকি করছে নাসার প্রতিনিধিদল। এই গ্রহাণু পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, গ্রহাণুটি সৌরজগতের শুরুর দিকের বিভিন্ন তথ্য ধারণ করতে পারে।

ধারণা করা হচ্ছে এ ধরনের পাথুরে গ্রহাণুগুলো সৌরজগত সৃষ্টির সময় সৃষ্টি হয়েছিল। গ্রহাণু ‘২০২১ এনওয়াই ওয়ান’ একটি বিশাল পাথর। এটির আকার হতে পারে ১৩০ থেকে ৩০০ মিটার। যেটি স্ট্যাচু অব লিবার্টির আকারের তিনগুণ বড়। মহাকাশে এই গ্রহাণুর গতিবেগ ঘণ্টায় ৩৩ হাজার কিলোমিটার। এই গ্রহাণু শব্দের গতিবেগের তুলনায় ২৭ গুণ বেশি দ্রুতগতিতে ধেয়ে আসছে।

গতিবেগ আর অবস্থান যতই পর্যবেক্ষণ করা হোক, নিশ্চিত হয়ে কেউ বলতে পারে না এই গ্রহাণু পৃথিবীর পাশ দিয়ে যেতে যেতে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে বিধ্বস্ত হবে কিনা, বা পৃথিবীর ভূপৃষ্ঠে আঘাত করবে কিনা। এই গ্রহাণু নিয়ে এখন পর্যন্ত ১ হাজার গ্রহাণু অতিক্রম করবে পৃথিবীর পাশ দিয়ে।

এদিকে নাসার বিজ্ঞানীরা আরেকটি গ্রহাণুর কথা বলছেন। অ্যাপোফিস নামের এই গ্রহাণু পৃথিবীর খুব কাছ দিয়েই যাবে কিন্তু অন্তত শত বছর পৃথিবীকে আঘাত করবে না। ২০২৯ সালের ১৩ এপ্রিল শুক্রবার অ্যাপোফিস পৃথিবীর খুব কাছ দিয়ে যাবে।

৩৪০ মিটার আকারের এই গ্রহাণু পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল থেকে মাত্র ৩১ হাজার কিলোমিটার দূর দিয়ে যাবে। এই দূরত্ব অনেক স্যাটেলাইটের দূরত্বের চেয়েও কম। অ্যাপোফিসের বিশাল আকারের জন্য এই গ্রহাণু খালি দেখবেন পৃথিবীর ২০০ কোটি মানুষ।

স্ট্যাচু অব লিবার্টির চেয়ে বড় গ্রহাণু!

বিজ্ঞাপন




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও
Share via
Copy link
© ২০২৩- সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । হক কথা ২৪.নেট
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )
Share via
Copy link