● বুধবার, মে 22, 2024 | 12:12 অপরাহ্ন

মিসওয়াকের ফজিলত

মিসওয়াকের ফজিলত

১। আল্লাহ তালার সন্তুষ্টি লাভ হয়।
২। নামাজের সাওয়াব, ৭০ বা ৯৯ বা ৪০০ গুণ বেড়ে যায়।
৩। রিজিকের স্বচ্ছলতা বৃদ্ধি পায়।
৪। জীবিকানির্বাহ সহজ হয়।
৫। মুখ পরিষ্কার হয়।
৬। দাতের মাড়ি মজবুত হয়।
৭। মাথা ব্যথা সহ মাথার বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
৮। শরীরের রগ (শিরা) সুস্থ থাকে।
৯। কফ দূর হয়।
১০। দাঁত শক্ত হয়।
১১। দৃষ্টি শক্তি তীক্ষè ও প্রখড় হয়।
১২। পাকস্থলী সুস্থ্য থাকে।
১৩। শরীর শক্তিশালী হয়।
১৪। কথা স্পষ্ট হয়, বাগ্মিতা বাড়ে, মুখস্ত শক্তি বৃদ্ধি পায় ও জ্ঞান
বৃদ্ধি পায়।
১৫। অন্তর পবিত্র হয়।
১৬। নেকী বেড়ে যায়।
১৭। ফেরেস্তাগণ খুশি হয়।
১৮। চেহারার জ্যোতি বৃদ্ধিপায়,ফলে ফিরিস্তাগণ তাহার সাথে
মুসাফাহা (করমর্দন) করে।
১৯। মসজিদ থেকে বের হলে ফেরেস্তাগণও তার পিছনে পিছনে
চলেন।
২০। নবী রাসূলগণ তার জন্য ক্ষমার দোয়া করেন। শয়তায়
অসন্তুষ্ট হয়।
২১। হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।
২৩। সন্তান প্রজনন ক্ষমতা বাড়ে।
২৪। বার্ধক্যের ছাপ বিলম্বে আসে।
২৫। মেরুদন্ড মজবুত হয়।
২৬। শারিরিক উষ্ণনতা দূর হয়।
২৭। দাতের উজ্জলতা বাড়ে।
২৮। মুখের সুগন্ধ বাড়ায়।
২৯। পেটের রোগ দূর হয়।
৩০। কন্ঠ পরিষ্কার হয়।
৩১। জিহ্বা পরিষ্কার হয়।
৩২। বুদ্ধি বেড়ে যায়।
৩৩। বীর্য গাঢ়হয়।
৩৪। দুনিয়া হতে পবিত্র হয়ে যায় (দুনিয়া ত্যাগী হতে সহজ হয়)।
৩৫। ফেরেস্তাগণ তাকে নবীর অনুসারী বলে।
৩৬। মৃত্যুর যন্ত্রনা সহজ হয়।
৩৭। কবর প্রশস্ত হয়।
৩৮। মৃত্যুর সময় কালিমা নসীব হয়।
৩৯। মৃত্যুর সময় ফেরেস্তাগণ তার সাথে সম্মানের সাথে উপস্থিত
হন।
৪০। আমল নামা ডান হাতে পাওয়া যায়।
৪১।পুলসিরাত বিদ্যুত গতিতে পার হওয়া যায়।
৪২। জাহান্নামের দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়।
৪৩। জান্নাতের দরজা খুলে দেওয়া হয়।

সুন্নাতী যিন্দিগী

এই সম্পর্কিত আরও

আবুল কালাম
বিস্তারিত...
 আরবে ঈদের তারিখ ঘোষণা
বিস্তারিত...
রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান
বিস্তারিত...
813788_175
বিস্তারিত...
জান্নাতের ফুল
বিস্তারিত...
যেদিন আশুরা
বিস্তারিত...