1. faysalislam405@gmail.com : ফয়সাল ইসলাম : ফয়সাল ইসলাম
  2. tajul.islam.jalaly@gmail.com : তাজুল ইসলাম জালালি : তাজুল ইসলাম জালালি
  3. marufshakhawat549@gmail.com : মারুফ হোসেন : মারুফ হোসেন
  4. sheikhmustakikmustak@gmail.com : Sheikh Mustakim Mustak : Sheikh Mustakim Mustak
  5. najmulnayeem5@gmail.com : নাজমুল নাঈম : নাজমুল নাঈম
  6. rj.black.privateboy@gmail.com : rjblack :
  7. saddam.samad.24@gmail.com : সাদ্দাম হোসাইন : সাদ্দাম হোসাইন
  8. samirahmehd1997@gmail.com : Samir Ahmed : Samir Ahmed
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন

শতবর্ষী নারীর কণ্ঠে কুরআন তিলাওয়াত!

সাদ্দাম হোসাইন
  • প্রকাশিতঃ শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩৭ বার পড়া হয়েছে
শতবর্ষী প্রবীন মহিলা
শতবর্ষী প্রবীন মহিলা

আল্লাহু আকবার! যেখানে সত্তর/আশি বছর বয়স হলে মানুষ অনেক সময় নিজের নামটাও ভুলে যায়; সেখানে পবিত্র কুরআন তিলাওয়াতরত ইন্দোনেশিয়ান ভদ্রমহিলার বয়স একশো বছর! শতবর্ষী এ প্রবীন মহিলা সূরা ইয়াসিন-এর প্রথম ১৩টি আয়াত প্রায় নির্ভুলভাবে অনর্গল মুখস্থ বলে যাচ্ছেন! সুবহানাল্লাহ!

কোনো সন্দেহ ছাড়াই পৃথিবীতে আমাদের জন্য সবচেয়ে বড় নেয়ামতগুলোর অন্যতম একটি হলো ‘আল কুরআন’! এটি আমাদের ধর্মগ্ৰন্থের পাশাপাশি জীবন বিধানও। কুরআন বুঝে পড়ি আর না বুঝে পড়ি এর প্রতিটি হরফ পড়ার বিনিময়ে রয়েছে কমপক্ষে দশটি করে সওয়াব।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন, ‘যে ব্যক্তি কুরআনের একটি হরফ পড়বে, সে একটি নেকি পাবে, আর প্রতিটি নেকি দশ গুণ করে বৃদ্ধি করে দেওয়া হবে।’ (তিরমিজি শরিফ; হাদিস : ২৯১০)

হাদিসে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, তোমরা কুরআন তেলাওয়াত করো। কেননা কুরআন কেয়ামতের দিন তার তিলাওয়াতকারীদের জন্য সুপারিশকারী হিসেবে আগমন করবে। (মুসলিম শরিফ; হাদিস নং ৮০৪)

আরেক হাদিসে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন, ‘যারা সহিহ-শুদ্ধভাবে কুরআন তেলাওয়াত করে, তারা পূণ্যবান সম্মানিত ফেরেশতা তুল্য মর্যাদা পাবে। আর যারা কষ্ট হওয়া সত্ত্বেও কুরআন শুদ্ধভাবে পড়ার চেষ্টা ও মেহনত চালিয়ে যায়, তাদের জন্য রয়েছে দ্বিগুণ সওয়াব।’ (আবু দাউদ শরিফ; হাদিস : ১৪৫৪)

একটা সময় পবিত্র কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে এদেশের মুসলমানদের দিন শুরু হতো। প্রায় প্রতিটি ঘর থেকেই ঊষালগ্নে কুরআন তিলাওয়াতের সুমধুর ধ্বনি ভেসে আসত। দুঃখের বিষয়, এটি দিন দিন আশঙ্কাজনক হারে কমে আসছে। কুরআন বুকে শিশুদের মক্তবে যাওয়ার পবিত্র দৃশ্যও এখন আর তেমন চোখে পড়ে না!

যারা কুরআন পড়তে পারি না তারা একটা তারিখ নির্দিষ্ট করে সেই তারিখের মধ্যেই কুরআন পড়া শিখে ফেলি। আর যারা দেখে পড়তে পারি তারা অন্তত প্রতিদিন একটা করে আয়াত মুখস্থ করে নিই। অনন্ত ছোট এবং মাঝারি আকারের সূরাগুলো তো মুখস্থ করতেই পারি।

বিজ্ঞাপন




শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই সম্পর্কিত আরও
© ২০২১ - সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । হক কথা ২৪.নেট
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )